সেখানে পু’লিশ জানিয়েছে, মৃ’ত্যুর পরও লরির কেবিনে নিয়ে গিয়ে ২৭ বছরের ওই তরুণীকে চার জনই একে একে ধ’র্ষণ করে। সম্প্রতি ভারতের হায়দরাবাদে এক তরুণী চিকিৎসককে ধ’র্ষণের পর নির্মমভাবে হ’ত্যা করা হয়েছে।




এ ঘটনায় পুরো ভারত প্রতিবাদে উত্তাল। গণধ’র্ষণ ও খু’নের ঘটনায় আ’দালতে একটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছে পু’লিশ। পু’লিশ আরো জানিয়েছে, মোহাম্মদ আলিয়াস আরিফ, জল্লু শিবা, জল্লু নবীন ও চেন্নাকেশাভুলু; এই চার অ’ভিযুক্ত জোর করে টেনে হিঁচড়ে তাকে কেবিনের কাছে নিয়ে যায়।




সেখানে তাকে জোর করে নরম পানীয়ের মধ্যে হুইস্কি মিশিয়ে খাওয়ানো হয়। তারপর মাথায় জোরে আ’ঘাত করে গণধ’র্ষণ করে দে’হ জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। গোটা ঘটনাটি ১ ঘণ্টার মধ্যে ঘটিয়েছে ওই চারজন।




আরো জানিয়েছে, তরুণীকে খু’ন করার পরো লরির কেবিনে নিয়ে এসে ফের গণধ’র্ষণ করে একে একে। কেবিনের তারা সিদ্ধান্ত নেয় একজন গাড়ি আনতে যাবে ও নি’র্যাতিতার জামাকাপড় আনবে।




এরপর তারা গাড়ি করে সাধনগরের কাছে জাতীয় সড়কে চলে আসে অন্ধকার জয়াগায় খোঁজার জন্য। সাধনগরের ছাটানপল্লির একটি কালভার্টের তলায় দে’হটিকে কম্বলে জড়িয়ে পেট্রল ছড়িয়ে দেয়।




তারপর আ’গুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। তরুণীকে যাতে চিহ্ণিত করতে না পারে, তারজন্যই পুড়িয়ে দেওয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here