সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর উপস্থিতিতে একটি আবাসিক হোটেলে অ’ভিযান চালায় পু’লিশ।




সিলেট নগরীর লালবাজার এলাকার একটি আবাসিক হোটেলে অ’ভিযান চালিয়ে অ’সামাজিক কার্যকলাপে জ’ড়িত থাকার অ’ভিযোগে ১২ জনকে আ’টক করেছে সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)।

গতকাল মঙ্গলবার সকালে সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে সিটি করপোরেশনের একটি টিম লালবাজার এলাকার ড্রেন-নালা ও মাংসের দোকান পরিদর্শন করতে যান। এ সময় ওই এলাকার স্থানীয়রা মেয়রের কাছে আজাদ বোর্ডিং নামের একটি আবাসিক হোটেল দিনে-রাতে অ’সামাজিক কার্যকলাপ চলে বলে অ’ভিযোগ করেন।




এরই পরিপ্রেক্ষিতে কোতোয়ালী মডেল থানা পু’লিশ ও এসএমপি পু’লিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করলে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর উপস্থিতিতেই আজাদ বোর্ডিংয়ে অ’ভিযান চালনো হয়। এ অ’ভিযানে হোটেল থেকে পাঁচ নারী ও সাত জন পুরুষকে আ’টক করে থানায় নিয়ে যায় পু’লিশ। সেইসঙ্গে সিলগালা করে দেওয়া হয় আজাদ বোর্ডিং।




সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, ‘পবিত্র এই নগরীকে কোনোভাবেই অপবিত্র করতে দেওয়া হবে না। যারা এই অ’সামাজিক কাজে জ’ড়িত থাকবেন তাদের বি’রুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’




এ সময় সিসিকের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মো. জসীম উদ্দিন, নির্বাহী প্রকৌশলী আলী আকবর, লাইসেন্স কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর, লাইসেন্স পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান, রুবেল আহমদ নান্নুসহ সিসিকের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here