প্রেয়সীর সাথে প্রেমটা আরেকটু বাড়িয়ে নিতে কিংবা শারীরিকভাবে আরেকটু কাছাকাছি আসতে চু’মুর কোন বিকল্প নেই। কিন্তু তার আগে তো আপনাকে জানতে হবে যে মেয়েরা কি ধরনের চুমু পছন্দ করে। নইলে ঝুপ করে একটা দিয়ে বসলেন আর আপনার প্রেয়সী রাগে ফুলে গেল।




টোটাল আয়োজনটাই তখন মাঠে মারা যাবে। উইকিইয়েহ নামক একটি ওয়েবসাইট সম্প্রতি মেয়েদের উপর একটা জরীপ চালায়। মোট দশহাজার নারীকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল তারা কোন ধরনের চুমু পছন্দ করে। তাদের মতামতের ভিত্তিতে নারীদের পছন্দের এই সাত প্রকার চুমুর কথা তুলে ধরা হলো।




৫. ডা’র্টি কিস: নাম শুনে ওয়াক করবেন না। নাম ডার্টি কিস হলেও এর সম্পর্ক আসলে নোং’রার সাথে নয়। খাবারের সাথে। মুখে কোন খাবার নিন, সেটা হতে পারে চকোলেট। তারপর চকোলেটে দুজনের ঠোঁট মাখামাখি হয়ে যাক।
ঝগড়ার সময়: একত্রে থাকবেন আর ঝগড়া হবে না এটা হতেই পারে না। ঝগড়া হবেই। আর সেই ঝগড়ার পরিণতি কথা বন্ধ পর্যন্ত হতে পারে। তাহলে এবার একটু অন্যভাবে ভাবুন। ঝগড়া হোক যাই হোক সে তো আপনারই কলিজার টুকরো; তাই ঝগড়ার মাঝে হঠাৎ করে ঠোঁট চেপে ধরুন তার ঠোঁটে। দেখবেন সব রাগ পানি। অত:পর ঝগড়া ভ’ঙ্গ করে বিছানায় প্রে’ম প্রে’ম খেলা শুরু।




যৌ’না’ঙ্গে চুমু: ধরুন আপনার শ’য্যাস’ঙ্গী আছে এবং নিয়মিত সে’ক্স উপভোগ করেন । তবে যৌ’না’ঙ্গে কেন চুমু নয়? জেনে রাখুন সে’ক্সে’র সময় যদি প্রেয়সীর যো’নিপ’থে চুমু দেন তবে তা কামউ’দ্দীপ’না বৃদ্ধি করে। যৌ’না’ঙ্গে চুমু দেয়া মেয়েদের জন্য খুবই উপভোগ্য। এতে আপনার স্বাস্থ্যগত কোন সমস্যা হবে না কারন সে’ক্সের সময় যো’নিপ’থে এক ধরনের তরলের আবির্ভাব হয় যা ক্ষতিকর জীবানু ধ্বংস করে। তবে চুমু দেবার আগে যো’নিপথ ধু’য়ে নেয়াটাই ভাল।




এগেইনস্ট ওয়াল: এগেইনস্ট ওয়াল বা দেয়ালে চেপে ধরে চু’ম্বন করা মেয়েরা পছন্দ করে থাকে। এক্ষেত্রে প্রেয়সীকে আপনি দেয়ালের দিকে চেপে ধরবেন এবং তারঁ ঠোঁটে ঠোঁ’ট ডুবিয়ে দিবেন। দাঁড়িয়ে অথবা প্রেয়সীকে কোলে তুলে এই চুমু দিতে পারেন। যদিও অনেকে মনে করে এটা অত্যন্ত রাফ একটি পদ্ধতি। তবে অধিকাংশ পুরুষই এক্ষেত্র দা’য়িত্ব’শীল হয়। তাই জোরে ঠে’সে ধরা বা ধা’ক্কার ফলে ব্যাথা পাওয়ার সম্ভাবনা থাকেনা।




ফো’র্সড কি’সিং: শুনতে অদ্ভূত লাগলেও এটা সত্যি যে প্রেয়সীকে জো’র করে টপাটপ কয়েকটা চুমু খেয়ে ফেললে সে বিরক্তি প্রকাশ করলেও খুশি হয়। এটা তার কাছে একটা ভালবাসার সারপ্রাইজের মত মনে হয়। সে বুঝতে পারে তার প্রতি আপনার মনযোগ নষ্ট হয়নি। তবে কোন অপরিচিত কিংবা অন্যায়ভাবে কারও সাথে এমনটা করতে যাবেন না। তবে জুতার বাড়ি এবং জেলের ভাত দুইই জুটবে।




কা’ন্নার সময়: আপনার প্রে’য়সী হয়তো কোন বিষয়ে কষ্টে আছে। সে আপনার সামনে বসে কাঁদছে। আপনি বোকার মত বসে না থেকে তাকে বুকে টেনে নিনি। মাথায় হাত বুলিয়ে দিন। কপালে এঁকে দিন চুমু। সে আপনার উপর তখন নির্ভর করবে এবং তার দু:খ কমতে থাকবে।
ইন্টারাপশন: ধরুন নি’র্জনে কোথাও দুজনে অ’ন্তর’ঙ্গ মু’হূ’র্তে আছেন। খুব রোমান্টিক কথাবার্তা চলছে আপনাদের মাঝে। এমন সময় হঠাৎ একটা বাক্যের মাঝখানে টুপ করে একটা চুমু এঁকে দিলেন তার ঠোঁটে। ভাবুন তো একবার কি চমৎ’কার মু’হূর্তটির সৃ’ষ্টি হবে তখন?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here